নোটিশ

সার্ভার নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারনে সবকিছু পরিপূর্ন ভাবে রিকোভার করা সম্ভব হয় নাই। দ্রুত আপডেট গুলো আবার অ্যাড করার চেষ্টা চলছে। দয়া করে পরে আবার দেখুন। সাময়িক অসুবিধার জন্যে আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

ভূ- রাজনীতি বিষয়ক স্থানের নাম

১। ডোকলাম মালভূমি- ভারত , চীন & ভুটান সীমান্তে
২। লাদাখ- ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যে অবস্হিত।
৩। আল উদেইদ’ — কাতারে অবস্হিত। মধ্যপাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম বিমানঘাঁটি।
৪। কাতালোনিয়া’ শহর – স্পেনে অবস্হিত। স্পেন থেকে স্বাধীন হওয়া / স্বাধীনতার জন্য গণভোটের দাবিতে কাতালোনিয়ার নাগরিকরা দীর্ঘদিন যাবৎ আন্দোলন করছে ।
৫। হাম্বানটোটা- গভীর সমুদ্রবন্দর । শ্রীলংকায় অবস্থিত চীনের মালিকাধীন
৬। হামফ্রেইস – সামরিক ঘাঁটি। দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থিত। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে এটাই যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম সামরিক ঘাঁটি।
৭।গুয়াম – প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত আমেরিকার সামরিক ঘাঁটি
৮।মারায়ি – মুসলিম অধ্যুষিত অঞ্চল। মিন্দানাও দ্বীপে অবস্হিত ( ফিলিপাইন )।
৯। কোবান -সিরিয়ার কুর্দি অধ্যুষিত শহর।১০।আলেপ্পো শহরটি সিরিয়ায় অবস্হিত ।
১১। দেইর আজ- যোর শহর- সিরিয়ায় অবস্হিত।
১৩। রাক্কা শহর – সিরিয়ায় অবস্হিত । আইএস ঘোষিত খেলাফতের রাজধানী ‘রাক্কা’ ।
১৪। তেল আরাফ – শহরটি – ইরাকে অবস্হিত । আইএস অধ্যুষিত এলাকা ।
১৫। মসুল – শহরটি ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর। আইএস অধ্যুষিত এলাকা। ঐতিহাসিক গ্র্যান্ড আল- নুরি মসজিদটি মসুল শহরে অবস্হিত। হেলানো মিনারের জন্য বিখ্যাত মসজিদটি ১১৭২- ৭৩ সালে নির্মিত হয়।
১৬। ইনসেন – মিয়ানমারের বিখ্যাত কারাগার ।

বাংলাদেশ – মিয়ানমারের কিছু

১। তুমব্রু – ঘুনধুম সীমান্ত — বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়িতে অবস্হিত।
২। নাইক্ষংদিয়া স্হানটি – বাংলাদেশ( টেকনাফ ) ও মিয়ানমার সীমান্তে অবস্হিত ।
৩। নেটং পাহাড় – কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার নাইট্যংপাড়ায় অবস্হিত।
৪। শাহপরীর দ্বীপ – কক্সবাজারের টেকনাফে অবস্হিত।
৫। সিত্তে – মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রাজধানী।
৭। মংডু – বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সীমান্তে অবস্হিত।
৮। পালংখালী সীমান্ত – কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় অবস্হিত।
৯। শূন্যরেখা স্হানটি – বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে অবস্হিত।
১০।ঘোলারচর সৈকত – কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপে অবস্হিত।

এশিয়ার ভূ-রাজনীতি

১. কুরিল শাখালিন দ্বীপপুঞ্জ ২টি জাপানের জলসীমাতে হলেও রাশিয়া সেটি দখল করে রেখেছে।

২. জাপান-চীনের জলসীমাতে সেনকাকু দ্বীপটি বর্তমান চীন দখল করে রেখেছে।

৩. প্যারোসেল দ্বীপটি তাইওয়ানের। কিন্তু এটি চীন দখল করেছে। চীন প্যারোসেলসহ সমগ্র তাইওয়ানের মালিকানা দাবি করে আসছে।

৪. ফিলিপাইন-ভিয়েতনাম-চীনের মধ্যে বিরোধপূর্ণ স্পার্টলি দ্বীপটি চীনের দখলে।

৫. গুয়াম দ্বীপটি্ স্প্যানিস ফিলিপাইন থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কেড়ে নিয়েছিল।

৬. দোকালামের সাথে ভারতের কোন সম্পর্ক নাই। এটি ভুটান-চীনের বিরোধীপূর্ণ মালভূমি।

৭. সিলিগুড়ির চিকেন নেক ভারত-বাংলাদেশ-ভুটান-নেপাল-চীনের সীমান্ত সংলগ্ন। এটি ভারতের দখলে। সিলিগুড়ির চিকেন নেক নিয়ে ১৯৬২টি চীন-ভারত যুদ্ধ হয়।

৮. মধ্যে এশিয়া ও দক্ষিণ এশিয়ার সংযোগস্থল কাস্মিরের ৪৩% ভারতের, ৩৭% পাকিস্তানের এবং ২০% চীনের দখলে।

৯. পাক-ভারত কাস্মিরের মধ্যে সীমারেখা লাইন অব কন্ট্রোল বা #লক। দুই কাস্মিরের মধ্যে অবস্থিত পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু যুদ্ধক্ষেত্র সিয়াচেন হিমবাহ।

১০. আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে অবস্থিত নার্গাখো_কারবাখ একটি বিরোধপূর্ণ করিডোর।

১১. ১৯৭১ সাল থেকে সিরিয়ার মাত্র ১% এর কম আলাবি জনগোষ্ঠির হাফিজ আল আসাদ ও তার পুত্র বাসার আল আসাদ শাসন করে আসছে।

১২. সিরিয়ার যুদ্ধরত অঞ্চলগুলো হচ্ছে আফরিন, ঘৌত, হামা, হিমস, রাক্কা, আলেপ্পো, দামাস্কাস, তুরতুস প্রভৃতি।

১৩. সিরিয়ার পলমাইরা বিখ্যাত রোমান শহর। একে বলা হয় তালগাছের নগরী।

১৪. সিরিয়ার গোলান হেইট বা গোলান মালভূমি ১৯৬৭ সালের তৃতীয় আরব-ইসরাইল যুদ্ধে ইসরাইল দখল করে রেখেছে।

১৫. সিরিয়াকে বলা হয় সভ্যতার সূতিকাগার। সিরিয়ার উগরিটে প্রথম বর্ণমালা পাওয়া গেছে।

১৬. বিরোধপূর্ণ জর্ডান নদীর সাথে জিসাস ক্রাইস্ট (ইসা আ.) এর স্মৃতি জড়িত। এই নদীটির পানি বন্টন নিয়ে ইসরাইল ও জর্ডানের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে।

১৭. গ্যালিলি সি নামে খ্যাত আরব হ্রদটি সিরিয়াতে হলেও এটির মালিকানা ইসরাইল দাবি করে।

১৮. আফ্রিকা ও এশিয়া জুড়ে অবস্থিত নগরী সিনাই মিশরের নিকট থেকে ইসরাইল কেড়ে নিয়েছিল। ১৯৭৮ সালে ক্যাম্প ডেভিড চুক্তি অনুসারে ইসরাইল মিশরকে এটি ফেরত দিতে বাধ্য হয়।

১৯.২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত আই এস বা ইসলামিক স্টেট প্রতিষ্ঠা করে ইরাক-সিরিয়ার আলকায়েদা নেতা আবু বাক্কার আল বাগদাদি।

২০. ২০১৪ সালে আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করেন ন্যাটো। ২০০১ সালে অপারেশন এনডিউরিং ফ্রিডমের মাধ্যমে আফগানিস্তান থেকে তালিবান সরকারের পতন ঘটায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জোট।